সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯

প্রস্তুত হচ্ছে বাংলাদেশ, প্রস্তুত হচ্ছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরাও

ক্রীড়া প্রতিবেদক, লন্ডন থেকে : লন্ডনে রাত ৯টা ৬ মিনিটে ইফতার। ওয়াইট চ্যাপেলের সবথেকে বড় মসজিদ ইস্ট লন্ডন। মাগরিবের নামাজ পড়ে বেরিয়ে স্থানীয় এক কিশোর দাঁড়িয়ে পড়লেন মসজিদের বাইরে। হাতে ছাতা। ছাতায় টাঙিয়ে রাখলেন চারটি সাইজের বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সি।
মাটিতে কার্টনের ভেতরে রাখা গোটা পঞ্চাশেক জার্সি। পাশ থেকে বন্ধু উঁচু গলায় জার্সি বিক্রির জন্য ডাকাডাকি করছিলেন। দেশের মতো এখানেও জার্সির দাম বেশ চড়া। ১৩ থেকে ১৫ পাউন্ডে জার্সি বিক্রি করছেন তারা। শুধু তারাই না ওয়াইট চ্যাপেলের বিভিন্ন দোকানে শোভা পাচ্ছে বাংলাদেশের জার্সি। বিসিবি যে জার্সিটি অফিসিয়াল বলে বিক্রি করছে সেটাও আছে, আছে রেপ্লিকা জার্সি। দুইয়ের মধ্যে পার্থক্য করা অবশ্য বেশ কঠিন।
জানা গেল, স্থানীয় বাংলাদেশি এক ব্যবসায়ী দেশ থেকে প্রায় ৪ হাজার পিছ জার্সি এনেছেন। সেগুলো লন্ডন পর্যন্ত পৌঁছতে খরচ হয়েছে ৭ পাউন্ডের ওপরে। তাই লন্ডনেও জার্সির দাম বেশ চড়া। দাম চড়া হলেও প্রবাসী বাংলাদেশিদের জার্সির প্রতি আগ্রহ আকাশচুম্বি। রোববার বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ ওভালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। পরিবারের সবাই মিলে একসঙ্গে বাংলাদেশের ম্যাচ দেখবেন বলে জার্সি কিনেছেন অনেকেই। ছোট-বড়, মাঝারি সব সাইজের জার্সি পাওয়া যাচ্ছে লন্ডনে।
মাঠের লড়াইয়ে ক্রিকেটারদের অনুপ্রাণিত করতে বেশ ভালোভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা। রোববার হলিডে। তাই ধারণা করা হচ্ছে ওভালে টাইগার সমর্থকদের সমাগম হবে বেশ। সারের যে মাঠে খেলা সেখানে দর্শক ধারণ ক্ষমতা ২৩ হাজার ৫০০। মক্কা রেস্টুরেন্টে ইফতারে প্রবাসী এক বাংলাদেশি বেশ আত্মবিশ্বাস নিয়ে বলেও দিলেন, ‘দেখবেন সেদিন কমপক্ষে ১৮ হাজার বাংলাদেশি সমর্থক মাঠে থাকবে।’ কথাটা বিশ্বাসযোগ্য। কারণ, দক্ষিণ আফ্রিকা-ইংল্যান্ডের প্রথম ম্যাচে প্রোটিয়াদের জন্য মাঠে চিৎকার করেছে খুবই অল্প সমর্থক। স্বাগতিক দর্শকদের দখলেই ছিল ওভাল। তাইতো বাংলাদেশের ম্যাচেও ওভালে ‘বাংলাদেশ-ওয়েব’ সৃষ্টি হবে বলে বিশ্বাস প্রবাসী বাংলাদেশিদের।
এদিকে একদিনের বিশ্রাম শেষে আজ আবারো মাঠে প্রস্তুতিতে ফিরছে বাংলাদেশ দল। স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় ওভালে মাঠে নামবেন মাশরাফি, সাকিবরা। গতকাল যার যার মতো করে সময় কাটিয়েছেন ক্রিকেটাররা। দলের একাধিক ক্রিকেটার বেড়িয়েছেন টিম হোটেল পার্ক প্লাজা রিভারব্যাংকের হাতের নাগালে থাকা থামেস নদীর তীরে। হোটেল থেকে হাঁটা দূরত্বে গিয়ে বিকেলে রোদ গায়ে লাগিয়েছেন তারা। গিয়েছিলেন ল্যামবেথ ব্রিজেও। রাতে শহরের অক্সফোর্ড ভিস্তা ভিলেজে শপিং করেছেন অনেকে।
অনুশীলন না হলেও গতকাল হোটেলে দুপুরে টিম মিটিং সেরেছে পুরো দল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের ছক কষা হচ্ছে ভালোভাবেই। কাগজে-কলমে দল প্রস্তুতি নিচ্ছে। আজ মাঠে নামবে শেষ প্রস্তুতি নিতে। মাঠে তাদের কঠোর প্রস্তুতির পাশাপাশি প্রবাসী বাংলাদেশিরাও প্রস্তুত হচ্ছেন দলকে অনুপ্রাণিত করতে।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

লেখক সম্পর্কে জানুন

এই রকম আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *