সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯

দৌলতখানে বিএনপির পাল্টাপাল্টি কমিটি

নিউজ ডেস্ক: ভোলার দৌলতখান উপজেলা বিএনপির দুটি পক্ষ গত বৃহস্পতিবার পাল্টাপাল্টি কমিটি গঠন করে অনুমোদনের জন্য জেলা কমিটির কাছে জমা দিয়েছে। দুই পক্ষই একে অন্যের বিরুদ্ধে দলছুট, ক্ষমতাঘেঁষা ও শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ তুলেছে।

বিএনপির স্থানীয় সূত্র জানায়, আবদুল মমিন আগামী সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার জন্য তদবির চালাচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় তিনি সাবেক সাংসদ ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হাফিজ ইব্রাহীমের শক্ত প্রতিপক্ষ তৈরি করছেন। বৃহস্পতিবার সকালে সম্মেলন করে হাফিজ ইব্রাহীমের পক্ষ উপজেলা কমিটি গঠন করে। বিকেলে আবদুল মমিনের পক্ষ পাল্টা কমিটি করে রাতে জেলা শহরের হোটেল শীষমহল মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে।

আবদুল মমিন বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন চাইব সত্যি। শুনেছি হাফিজ ইব্রাহীমের কমিটির বিপক্ষে পাল্টা কমিটি হয়েছে। এতে আমার মদদ নেই।’ জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর ও সাধারণ সম্পাদক ফারুক মিয়া বলেন, সকালে সম্মেলন করে দৌলতখান উপজেলা ও পৌরসভা কমিটি করা হয়েছে। এর বিপক্ষে আরেকটি কমিটির তালিকাও জমা পড়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা বিএনপির বর্তমান ও নবগঠিত মমিনপক্ষের কমিটির সাধারণ সম্পাদক নাজিমউদ্দিন হাওলাদার লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন দৌলতখান পৌরসভার সাবেক সভাপতি ফরাজী আবুল কাশেম, উপজেলা কৃষক দলের সভাপতি আবুল বাশারসহ ৩০ জন নেতা।

নাজিমউদ্দিন হাওলাদার বলেন, ‘হাফিজ ইব্রাহীম দীর্ঘদিন ধরে তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের মতামত না নিয়ে দল পরিচালনা করছেন। আট বছর পর তিনি দৌলতখান উপজেলা ও পৌরসভার পকেট কমিটি করে অনুমোদনের জন্য পাঠিয়েছেন। যাঁরা দৌলতখানে বিএনপির জন্য পরিশ্রম, ত্যাগ ও যন্ত্রণা সহ্য করে এলাকায় বাস করছেন, তাঁদের বাদ দিয়ে অসুস্থ আবদুল মান্নানকে সভাপতি ও নিজ প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী শাজাহান সাজুকে সাধারণ সম্পাদক করে উপজেলা কমিটি করেছেন। একই রকমভাবে পৌরসভা কমিটি গঠন করেছেন। আমরা এ কমিটি মানি না। তাই গোলাম কিবরিয়াকে সভাপতি ও নাজিমউদ্দিন হাওলাদারকে সাধারণ সম্পাদক করে উপজেলা কমিটি করা হয়েছে। পৌর কমিটিও গঠন করা হবে।’

সাবেক সাংসদ হাফিজ ইব্রাহীম বলেন, ‘দলীয় গঠনতন্ত্র অনুসরণ করে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, পৌরসভা ও উপজেলা কমিটির নেতাদের মতামতের ভিত্তিতে জেলার নেতারা উপজেলা ও পৌর কমিটি গঠন করেছেন। সেখানে আমার হস্তক্ষেপ ছিল না।’
সূত্র: প্রথম আলো

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

লেখক সম্পর্কে জানুন

এই রকম আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *